হুমায়ূন আহমেদকে নিয়ে কাজ করতে গেলে প্রয়োজন সততার : শাওন

নভেম্বর ২৫, ২০১৭ ১১:০১ পূর্বাহ্ণ

‘হুমায়ূন আহমেদকে নিয়ে কাজ করতে গেলে একটি জিনিসই প্রয়োজন, তা হলো সততা। তাকে নিয়ে অনেক কিছু করার জায়গা আছে।

এমনকি সততা দিয়ে হুমায়ূন আহমেদের যে মন্দ বিষয় ছিল সেগুলোও তুলে আনা সম্ভব বলে মনে করি। শর্ত একটাই, যিনি লিখবেন অথবা যিনি নির্মাণ করবেন তাকে অবশ্যই সৎ থাকতে হবে। ‘ মুঠোফোনে কলকাতা থেকে আজ (শনিবার) দুপুরে  এভাবেই নিজের কিছু অভিব্যক্তি প্রকাশ করলেন হুমায়ূন পত্নী মেহের আফরোজ শাওন।

সম্প্রতি মুক্তি পায় মোস্তফা সরয়ার ফারুকী পরিচালিত ‘ডুব’।   ছবিটি মুক্তির আগেই নানা কারণে আলোচনায় ওঠে আসে। আলোচনার একটাই ইস্যু ছিল- এটা প্রয়াত কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের বায়োপিক নাকি ছায়া অবলম্বনে। মূলত মুক্তির পরপরই এ প্রশ্নের উত্তর মেলাতে শুরু করেন দর্শকরা। অনেকেই প্রশ্ন তুলেন ছবিটি হুমায়ূন পত্নী মেহের আফরোজ শাওন কি দেখেছেন। এমনকি যে সব দর্শক ছবিটি দেখেননি তাদেরও আগ্রহ ছিল এই প্রশ্নের উত্তর শুনতে।

অবেশেষে শাওন দেখেছেন। এমনটাই জানালেন তিনি। কয়েকদিন আগে ঢাকায় একটি বিশেষ শোতে ‘ডুব’ ছবিটি দেখেন শাওন।

তা ছবি দেখার পর নিশ্চয়ই অনেক কৌতূহলের সমাপ্তি ঘটেছে এমনটা জানতে চাইলে শাওন বলেন, ‘এক কথায় বলতে গেলে ছবিটা দেখে আমার হাসি পেয়েছে। ইতিমধ্যে দর্শকরা তাদের রায় দিয়েছে। আমার রায়ও দর্শকদের মতোই। একটি কথা না বললেই নয়, কেন জানি মনে হচ্ছিল হুমায়ূন আহমেদকে জোর করে ইনক্লুড করার চেষ্টা করা হয়েছে। দুঃখের বিষয় হুমায়ূনের কূল কিনারাতেও পৌঁছায়নি ছবিটি। ‘

তাহলে কেউ কেউ যে বলছেন এটি হুমায়ূন আহমেদের বায়োপিক? এবার শাওন বলেন, ‘ছবিতে যে চরিত্র তৈরি করা হয়েছে তা কোনোভাবেই হূমায়ূন নন। তারপরও কিছু কিছু ঘটনা মেলানোর চেষ্টা করা হয়েছে যার অনেকটাই ব্যর্থ। ‘

‘ডুব’ প্রসঙ্গে এককথায় আপনার মূল্যায়ন শুনতে চাই… কিছুক্ষণের জন্য মুঠোফোনের ওপার থেকে কোনো সাড়াশব্দ পাওয়া যাচ্ছিল না। অবশেষে জানালেন তার অভিব্যক্তি। শাওন বলেন, ‘অনেক চড়াই উৎরাই ও ঝড়-ঝাপটা বয়ে গেছে জীবনের ওপর দিয়ে। ক্যান্সারের মতো একটি রোগের সঙ্গে পারিপারিকভাবে যুদ্ধ করেছি। ‘ডুব’ ছবি নিয়ে আশঙ্কা ছিল। ভয় ছিল, হুমায়ূন আহমেদের মতো একটি বটবৃক্ষকে তারা কীভাবে উপস্থাপন করবে। কিন্তু জনগণেরও একটা আদালত রয়েছে। সে আদালতে বিচার ঠিকই পেয়ে গেছি আমি। অপেক্ষা করেছিলাম, হুমায়ূন ভক্তরা ছবিটিকে কীভাবে গ্রহণ করবে। অনেকে কিন্তু হুমায়ূন ব্র্যান্ডের জন্যই হলে গিয়েছেন। এটাও ভেবেছি, কেউ যদি তাকে বিকৃত করার চেষ্টা করে সেই ভক্তরাই তাকে ছুড়ে ফেলে দেবেন। ‘

 
সংবাদটি পড়া হয়েছে 1209 বার
 
 
 
 
বাংলাদেশী জাতীয়তাবাদ ও তারেক রহমান
 
 
 
 

সব মেনু এক সাথে

 
 

পূর্বের সংবাদ

 
 

অনন্য অনলাইন পত্রিকা

 
 
 

 
Plugin by:aAM
Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com