হাসতে নেই মানা

জানুয়ারি ১৪, ২০১৮ ৯:৪৪ পূর্বাহ্ণ

ইঞ্জিনিয়ার বনাম ডাক্তারের মজার গল্পঃ

এক ইঞ্জিনিয়ার কিছুতেই ভালো একটা চাকরি পেল না। দু:খে সে একটা ক্লিনিক খুলে বসলো আর ক্লিনিকের বাইরে লিখে দিল – ‘লাখ টাকার চিকিৎসা মাত্র ৩০০ টাকায়! এখানে মাত্র ৩০০ টাকায় যে কোন রোগের চিকিৎসা করা হয়। ফল না পেলে এক হাজার টাকা ফেরত’

এক ডাক্তার ভাবল এক হাজার টাকা রোজকার করার একটা দারুণ সুযোগ! ডাক্তার সেই ক্লিনিকে গেলেন।

ডাক্তার: আমি কোন জিনিস খেতে গেলে তাতে কোন স্বাদ পাই না।

ইঞ্জিনিয়ার নার্সকে ডেকে বলল: ২২ নাম্বার বক্স থেকে ওষুধ বার করে রোগীকে তিন ফোটা খাইয়ে দাও।

ঔষধ খাবার পর মুখ বিকৃত করে রোগী (ডাক্তর) বললেন: আরে! এটা তো পেট্রোল।

ইঞ্জিনিয়ার: কংগ্রাচুলেশন! আপনার জিভ স্বাদ বুঝতে পারছে। এবার আমাকে আমার ৩০০ টাকা ফী দিয়ে দিন।

ডাক্তার মন কালো করে টাকাটা দিয়ে দিল চলে গেল।

কিছুদিন পর আবার সেই ডাক্তার ইঞ্জিনিয়ারের ক্লিনিকে আসলো। গতবারের পরাজয়কে ভুলতে পারছেন না তিনি।

ডাক্তার: আমার স্মৃতিশক্তি কমে গেছে, কিছুই মনে থাকেনা।

ইঞ্জিনিয়ার: নার্স, এনাকে ২২ নাম্বার বক্স থেকে তিন ফোটা ওষুধ খাইয়ে দাও তো।

ডাক্তার: কিন্তু স্যার! ওটা তো স্বাদ ফিরে পাওয়ার ওষুধ ছিল। সেদিন না খেলাম!

ইঞ্জিনিয়ার: বাহ! দেখলেন তো ওষুধ খাওয়ার আগেই আপনার স্মৃতিশক্তি ফিরে এসেছে। দিন আমার ৩০০ টাকা।

গচ্চা দিয়ে এবার ডাক্তার খুব রেগেই বাড়ি গেল।কিন্তু প্রতিশোধ নিতে আবার কিছুদিনপর ক্লিনিকে এসে ডাক্তার বলল: স্যার! আমার দৃষ্টিশক্তি একেবারেই কমে গেছে। একদমই দেখতে পাচ্ছি না! আর আপনার ২২ নম্বর বক্সের ওষুধ আমি খাবনা।

ইঞ্জিনিয়ার: ওহ! এর কোন ওষুধ আমার কাছে নেই। এই নিন, আপনার এক হাজার টাকা।

ডাক্তার: পাঁচশত টাকার নোট দিয়ে বলছেন এক হাজার টাকা!

ইঞ্জিনিয়ার: ওয়াও! আপনার দৃষ্টিশক্তিও ফেরত এসে গেছে। দিন আমার ৩০০ টাকা ফী।

 
সংবাদটি পড়া হয়েছে 1029 বার
 
 
 
 
বাংলাদেশী জাতীয়তাবাদ ও তারেক রহমান
 
 
 
 

সব মেনু এক সাথে

 
 

পূর্বের সংবাদ

 
 

অনন্য অনলাইন পত্রিকা

 
 
 

 
Plugin by:aAM
Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com