সিরিয়ার পূর্ব ঘৌটায় এখন কী ঘটছে, কেন ঘটছে?

মার্চ ৯, ২০১৮ ৪:২৩ পূর্বাহ্ণ

সিরিয়ার রাজধানী দামেস্কোর কাছাকাছি পূর্ব ঘৌটা জেলায় প্রায় চার লাখ লোক আটকা পড়েছেন। রাশিয়া ও সিরীয় বাহিনীর অবিরাম বিমান হামলা এবং স্থল অভিযানে সেখানে মানবিক সংকট দেখা দিয়েছে। বিদ্রোহীরাও বেসামরিক লোকদের মানবঢাল হিসেবে ব্যবহার করছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

অবরোধ : পূর্ব ঘৌটা ২০১৩ সাল থেকে সিরীয় সরকার অবরুদ্ধ করে রেখেছে। দেশটির বিদ্রোহীদের রাজধানী দামেস্কের কাছাকাছি এটিই সর্বশেষ ঘাঁটি।

ডি-এসকেলেশন জোন : কম যুদ্ধপ্রবণ অঞ্চলকে বলা হয় ডি-এসকেলেশন জোন। এ রকম অঞ্চলে সহিংসতা কম হয়, পর্যাপ্ত ত্রাণ মেলে ও স্থানীয় বাসিন্দারা তাদের বসতবাড়িতে ফিরতে পারেন। ২০১৭ সালে তুরস্ক, রাশিয়া ও ইরান পূর্ব ঘৌটাকে কম যুদ্ধপ্রবণ অঞ্চল বলে ঘোষণা করে। যাতে বলা হয়, সিরীয় ও রাশিয়ার যুদ্ধবিমান এ অঞ্চলের ওপর দিয়ে উড়বে না।

অবিরাম বোমাবর্ষণ : ১৯ ফেব্রুয়ারি ছিল রোববার। রুশ যুদ্ধবিমানের সহায়তায় সিরীয় বাহিনী সেখানে নির্বিচার বোমাবর্ষণ শুরু করে। এতে মাত্র কয়েক দিনের মধ্যে কয়েকশ বেসামরিক লোক নিহত হন। অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল যেটিকে যুদ্ধাপরাধ হিসেবে আখ্যা দিয়েছে।

জাতিসংঘের প্রস্তাব : ২৪ ফেব্রুয়ারি জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ ৩০ দিনের যুদ্ধবিরতির পক্ষে একটি প্রস্তাব পাস করে। যাতে রাশিয়াও সমর্থন দিয়েছিল। সন্ত্রাসী গোষ্ঠীদের এ প্রস্তাবের বাইরে রাখা হয়েছিল।

• প্রস্তাব থেকে বাদ পড়া একটি গোষ্ঠী হচ্ছে জাবহাত ফাতেহ আল শাম। আগে তারা আল নুসরা ফ্রন্ট নামে পরিচিত ছিল। তারা পূর্ব ঘৌটায় সক্রিয় রয়েছে বলে জানিয়েছে রাশিয়া।

• অন্যান্য বিদ্রোহী গোষ্ঠী হচ্ছে- জইশ আল ইসলাম, ফেয়লাক আল রহমান ও আহরার আল শাম। তারা পূর্ব ঘৌটা থেকে জাবহাত গোষ্ঠীকে বাদ দেয়ার সমর্থনে জাতিসংঘকে চিঠি দিয়েছে।

স্থল অভিযান : ২৫ ফেব্রুয়ারি সিরিয়ার সরকারি বাহিনী পূর্ব ঘৌটার বিভিন্ন প্রান্তে স্থল অভিযান শুরু করে।

নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নেয়া : ২৭ ফেব্রুয়ারি ছিল মঙ্গলবার। এদিন বেসামরিক লোকজনকে পূর্ব ঘৌটা থেকে বেরিয়ে যাওয়ার সুযোগ করে দেয়া হয়। তারা যাতে নিরাপদে বেরিয়ে যেতে পারেন, সে জন্য একটি করিডর খোলা হয়। প্রতিদিন পাঁচ ঘণ্টা করে এই করিডর খোলা রাখা হচ্ছে। স্পুটনিক ইন্টারন্যাশনাল জানায়, বেসামরিক লোকজনের সঙ্গে বিদ্রোহীদেরও বেরিয়ে যাওয়ার সুযোগ করে দিতে বৃহস্পতিবার আরও একটি করিডর খোলে রাশিয়া।

সিরীয় সরকার জানিয়েছে, বিদ্রোহীরা বেসামরিক লোকদের নিরাপদ আশ্রয়ের উদ্দেশ্যে বেরিয়ে যেতে দিচ্ছে না।

• গেল ৫ মার্চ পূর্ব ঘৌটায় প্রথম ত্রাণবহর ঢোকার সুযোগ পায়। রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী অভিযোগ করেন, বিদ্রোহীরা ক্রমাগত দামেস্কোর ভেতরে গোলাবর্ষণ চালিয়ে যাচ্ছে। তারা ত্রাণবহর ঢুকতে দিচ্ছে না। যারা নিরাপদ আশ্রয়ে চলে যেতে চান, তাদেরও বাধা দেয়া হচ্ছে।

• বৃহস্পতিবার রাশিয়ান রিকনসিলিয়েশন সেন্টার ফর সিরিয়া দ্বিতীয় দফায় ত্রাণ সরবরাহের ঘোষণা দিয়েছে। কিন্তু ভারী গোলাবর্ষণের মুখে সেই ঘোষণা স্থগিত করতে হয়েছে।

• রেডক্রস জানিয়েছে, পূর্ব ঘৌটায় প্রবেশ করতে যাওয়া চিকিৎসাসামগ্রী সিরীয় বাহিনী বাজেয়াফত করে ফেলেছে।

পূর্ব ঘৌটা কেন এত গুরুত্বপূর্ণ?

রাজধানীর পাশে : সিরিয়ার রাজধানী দামেস্কো থেকে পূর্ব ঘৌটা মাত্র ১০ কিলোমিটার দূরে। রাজধানীর নিকটবর্তী হওয়ায় তা নিজেদের দখলে নেয়া সিরীয় বাহিনীর জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে।

৪ মার্চ পর্যন্ত আল নাশহাবিয়া ও ওতায়াসহ বেশ কয়েকটি জেলা নিজেদের নিয়ন্ত্রণে নিয়েছে সিরিয়ার সরকারি বাহিনী। তারা এই অবরুদ্ধ অঞ্চলটির কেন্দ্রভূমি পর্যন্ত পৌঁছে গেছে। বিশেষ করে বাইত সাওয়ার একেবারে প্রান্তে ও মেসরাবার উপকণ্ঠে চলে গেছে আসাদ বাহিনী।

১০৪ বর্গকিলোমিটার জেলাটিতে চার লাখ লোকের বসবাস। এ জনসংখ্যার অর্ধেকটার বয়স ১৮ বছরের নিচে।

চলমান যুদ্ধ : আগামী ১৫ মার্চ সিরীয় গৃহযুদ্ধ আট বছরে পা রাখবে। এ যুদ্ধে চার লাখ ৬৫ হাজার সিরীয় নিহত হয়েছেন। এতে এক কোটি ২০ লাখ লোক গৃহহীন হয়ে পড়েছেন।

মানবিক সংকট

• গেল ১৯ দিনে পূর্ব ঘৌটায় ৯৩১ জন নিহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার সিরীয় অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস এসব তথ্য জানিয়েছে।

• নিহতদের মধ্যে ১৯৫টি শিশু ও ১২৫ জন নারী রয়েছেন।

ক্লোরিন গ্যাস: বেসরকারি সংগঠন হোয়াইট হেলমেটস জানিয়েছে, সরকারি বাহিনীর হামলার শিকার অনেকের শরীরে বিষাক্ত ক্লোরিন গ্যাস ব্যবহারের প্রমাণ মিলেছে। • রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরভ ক্লোরিন গ্যাস ব্যবহারের দাবি ভুয়া বলে উল্লেখ করেছেন।

যুদ্ধবিরতির লঙ্ঘন : যুদ্ধবিরতির প্রথম দিনেই হামলায় অন্তত চার বেসামরিক লোক নিহত হয়েছেন।

সিরিয়ার রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা সানা জানিয়েছে, সন্ত্রাসীরা বেসামরিক লোকদের মানব ঢাল হিসেবে ব্যবহার করেছে। তারা নিরাপদ করিডরে রকেট হামলা চালিয়েছে। যারা পূর্ব ঘৌটা থেকে বেরিয়ে যেতে চাচ্ছে, তাদেরও বাধা দেয়া হচ্ছে।

 
সংবাদটি পড়া হয়েছে 1107 বার
 
 
 
 
বাংলাদেশী জাতীয়তাবাদ ও তারেক রহমান
 
 
 
 

সব মেনু এক সাথে

 
 

পূর্বের সংবাদ

 
 

অনন্য অনলাইন পত্রিকা

 
 
 

 
Plugin by:aAM
Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com