লন্ডনে বাংলাদেশ ফ্যাসিবাদ বিরোধী প্ল্যাকার্ড সো, ফ্যাসিজমের বৰ্ষপূতি

জানুয়ারি ৪, ২০১৮ ৫:০৩ অপরাহ্ণ

লন্ডনে বাংলাদেশ ফ্যাসিবাদ বিরোধী প্ল্যাকার্ড সো ০৫ জানুয়ারি ২০১৪ একটি কলঙ্কিত অধ্যায় ও ফ্যাসিজমের বৰ্ষপূতি- ওইদিন বাকশালী আওয়ামীলীগ সরকার সম্পূর্ণ নির্বাচন ব্যবস্থাকে ধ্বংস করে দিয়ে একটি ভোটারবিহীন নির্বাচন অনুষ্ঠান করে তারা দেশের একদলীয় শাসন ব্যবস্থা ও ফ্যাসিজম কায়েম করেছে। এর পর থেকেই বর্তমান দেশে- দখল, সন্ত্রাস, দুর্নীতি ও দুঃশাসন, নৈরাজ্যময় সাগরের মধ্যে আজ দেশের জনগণ পড়ে আছে। এর ফলে সমাজে অপসংস্কৃতি ঢুকছে। দেশে আজ সংঘাতের রাজত্ব চলছে। গণতন্ত্রের মূর্ত প্রতীক সাবেক প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশ জাতিয়তাবাদী দলের চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়াকে দুর্নীতির কালিমা দেয়া হচ্ছে। বাংলাদেশ আওয়ামিলীগের নেতাকর্মী ও সরকারের পক্ষ থেকে দিনের পর দিন তার নামে মিথ্যাচার করা হচ্ছে এবং তাকে রাজনৈতিক মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করা হচ্ছে !! এছাড়াও সারা দেশে বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের নামে রাজনৈতিক মিথ্যা মামলা, হামলা ও ভয়ভীতি প্রদশন করা হচ্ছে !! এই অবৈধ আওয়ামীলীগ ফ্যাসিস সরকার ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি ভোটারবিহীন, প্রার্থীবিহীন নির্বাচনের পর ক্ষমতায় এসে মানুষের বাক স্বাধীনতা, নিরাপত্তা, মানবাধিকার হরণ করেছে । নদীর স্রোত না থাকলে যেমন বদ্ধ থাকে, তেমনি এ সরকার ভোটারবিহীন নির্বাচন করতে করতে গণতন্ত্রকে বদ্ধ করেছে । নদীর বদ্ধ অবস্থা কাটলে যেমন প্রবল স্রোত আসে, ঠিক তেমনি গণতন্ত্রের এ বদ্ধ অবস্থা কেটে মানুষের ভোটাধিকার, মানবাধিকার, নিরাপত্তা, দেশের টেকসই উন্নয়নের স্রোত আনতে হবে আমাদের সবাইকে !!

যেমন আমরা সবাই ১৯৭১ সালে মহান স্বাধীনতার যুদ্ধ করে আমাদের বিজয় এনেছি-তা অম্লান রাখতে হবে এবং বর্তমান অবৈধ আওয়ামীলীগ সরকারের নৈরাজ্যময়, দুঃশাসন, গণতন্ত্রহীন পরিবেশ থেকে দেশের জনগণকে মুক্ত করতে আর একটি বিজয় অনতে হবে আমাদের সবাইকে । নববর্ষের রাতে পুলিশের হাতে শহীদ হওয়া যুবদল নেতার রুহের মাগফেরাত কামনা করে আখতার মাহমুদ বলেন, ইউনুস আলীর চারটি মাছুম বাচ্চার দিকে একবার তাকিয়ে দেখুন, আওয়ামীলীগ বাকশালী সরকারের পুলিশ ও RAB বাহিনী আর কত এভাবে ক্রসফায়ারের নামে হত্যা করবে বিরোধীমতের নেতা-কর্মীদের….!! প্ল্যাকার্ড প্রদর্শনীতে আরো বলা হয় ; স্বাধীন বাংলাদেশে গুম, বিনা বিচারে হত্যা শুরু হয়েছিলো শেখ মুজিবুর রহমানের শাসনামলে। স্বাধীন বাংলাদেশে প্রথম ক্রসফায়ারে বিচার বহির্ভূত হত্যাকান্ডের শিকার হয়েছিলেন সিরাজ শিকদার। আর তার কন্যা বর্তমান শেখ হাসিনার অবৈধ স্বৈরাচারী শাসনামলে বিদায়ী ২০১৭ সালে আইন ও সালিশ কেন্দ্রের তথ্য অনুযায়ি গুমের শিকার হয়েছেন ৯১ জন; ক্রসফায়ার, বন্দুক যুদ্ধ ও পুলিশ হেফাজতে নিহত হয়েছেন ১৬২ জন। এছাড়া কারাগারে ৫৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। হিন্দু সম্প্রদায়ের ২১২ টি প্রতিমা, ৪৫টি বাড়ি-ঘর ও ২১টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ভাংচুর হয়েছে। এতে ০১ জন নিহত ও ৬৭ জন আহত হয়েছেন। সবমিলিয়ে বাংলাদেশে ২০১৭ সালটি ছিলো মানবাধিকার লঙ্ঘনের বছর।সেই ধারাবাহিকতা অক্ষুণ্য রাখতে ২০১৮ সালের প্রথম দিনেই অবৈধ ফাসিস আওয়ামীলীগ হাসিনা সরকারের পুলিশের দ্বারা বিচার বহির্ভূত হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়েছেন বিরোধী দলের কর্মী হবিগঞ্জের চুনারুঘাট পৌরসভার সাবেক নির্বাচিত কাউন্সিলর ইউনুছ আলি । আমরা এই ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি । আসুন আমরা সবাই মিলে গণতন্ত্র পুনরুদ্বার আন্দোলনের ও ফাসিস্ট সরকারের হাত থেকে দেশের জনগণকে রক্ষা করি এবং বাংলাদেশের জনগণের ভোটাধিকার, মানবাধিকার ও নিরাপত্তা প্রতিষ্টিত করি !! বিজয় আমাদের অনিবায’! ইনশাআল্লাহ !!

এ মর্মে আজকে বাংলাদেশে ফ্যাসিজমের চার বছর পূর্তিতে সাংবাদিক, রাজনীতিবিদ ও লেখক আকতার মাহমুদ ও ছাত্রনেতা আনোয়ার পারভেজ তালুকদার বাংলাদেশের বর্তমান ফাসিস্ট সরকারের বিরুদ্বে যুক্তরাজ্যের লন্ডনে প্রধানমন্ত্রী অফিসের সামনে “স্টপ বাংলাদেশ ফ্যাসিজম” শীর্ষক প্ল্যাকার্ড সো’র আয়োজন করে । অনাবাসী বাংলাদেশীদের এ সংগঠনটি ২০১৫ সালের মার্চ মাস থেকে বাংলাদেশে ফ্যাসিজমের উত্থানের প্রতিবাদে গণ সংযোগ ও সচেতনতা তৈরী করতে কাজ করে যাচ্ছে ।

ভিডিও লিংক : https://www.facebook.com/story.php?story_fbid=1524597360927166&id=100001307518388&notif_id=1515115653290901&notif_t=story_reshare&ref=notif

 
সংবাদটি পড়া হয়েছে 1504 বার
 
 
 
 
বাংলাদেশী জাতীয়তাবাদ ও তারেক রহমান
 
 
 
 

সব মেনু এক সাথে

 
 

পূর্বের সংবাদ

 
 

অনন্য অনলাইন পত্রিকা

 
 
 

 
Plugin by:aAM
Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com