” রিক্সা মামার টাকা মেরে ডিনার করলো জাহাঙ্গীরনগরের মেধাবী ছাত্র “

জানুয়ারি ৯, ২০১৮ ৩:৫৭ অপরাহ্ণ

:: জহির রায়হান অডিটোরিয়াম এর সামনে কনকনে শীতে খালি রিক্সা নিয়ে দৃঢ় বিশ্বাস বুকে লালণ করে যে লোকটি দাড়িয়ে ছিলেন তাহার নাম মতিউর!
ক্যাম্পাসে অনেক বছর যাবত জীবিকা নির্বাহের জন্যে মেধাবীদের গন্তব্যে পৌছে দেয়ার কাজটি করে যাচ্ছেন মাথার ঘাম পায়ে ফেলে!

আহারে মেধাবী!
আহারে জাহাঙ্গীরনগর!
আহারে বিবেক! আহারে মনুষ্যত্ব!!!

ঘড়ির কাটায় রাত ঠিক ৯.৪৫ বাজছে তখন
অডিটোরিয়াম থেকে আমাদের প্রোগ্রাম শেষ করে বের হয়েই দেখি রিক্সামামা দাড়িয়ে আছেন খালি রিক্সা সহ!
অনেক মেধাবীরা ঢাকছেন এই খালি মামা যাবেন!!?
মামা অনেকটা নির্বাক হয়েই বলেন না মামা যাবো না লোক আছে!
কিন্তু রিক্সা মামার গতিবিধি দেখে আমি অাঁচ করতে পারি কাহিনীটা কি!

কৌতূহল মিটাতে মামাকে জিজ্ঞেস করলাম মামা মানুষ রিক্সা নিতে চাচ্ছে, যাও না ক্যারে!?
মামা বললেন,
“এক ভাই আমার টেহা নিয়্যা গেছে আর আমারে কইছে এহানে দাড়াইয়া থাকতাম”

তখনি আমার বুঝা হয়ে গেছে কাহিনী টা কি!!
পরে মামার কাছে বিস্তারিত শুনলাম সেই সম্মানিত মেধাবী ছাত্র ভাই এর নাকি ৫০০ টাকার নোট পকেটে তাই মামার কাছে ভাংতি চেয়েছেন
আর মামা কইলেন ভাংতি নেই আর তখনি মেধাবী ভাইটি মামাকে বললেন তোমার কাছে কত টাকা আছে দাও আমি এক ভাই এর কাছ যাবো আর আসবো এসেই সব টাকা সহ তোমার ভাড়া দিবো!!
আর মজার বিষয় হচ্ছে অই মেধাবীকে খুব ভালো
করে চেনেন রিক্সামামা।

বাহ! বা বা বা বাহ!!
কি সুনিপুন দারুণ অভিনেতা আমাদের জাবিতে আছেন!আমরা এই মেধাবী কে নিয়ে গর্বিত।
জাতির মুখ উজ্জ্বল করলেন তিনি।
তাহার জন্যে অনেক দো আ ও ভালোবাসা রইলো
শুভ কামনা কুক্ষাত মেধাবী

আর ধন্যবাদ জানাচ্ছি ইচ্ছে পূরণ এর সকল কর্মীদের যারা মামাকে ঢেকে এনে অই দিনের যত টাকা মেধাবী ভাইটি নিয়ে ভেগে গেছেন তারচেয়েও কিছু পরিমান বেশি টাকা “ইচ্ছে পূরণ” সংগঠন থেকে মামার হাতে হস্তান্তর করা হয়।

ইচ্ছে পূরণ থেকে মামাকে টাকা দেয়ার উদ্দেশ্য ছিল একটাই যে, মামা যেনো এইটা বিশ্বাস না করে বিশ্ববিদ্যালয় এর ছেলেরা ছিনতাই কারী হয়!

সূত্র : নাজমুল হাসান অপুর ফেসবুক থেকে ।

 
সংবাদটি পড়া হয়েছে 2611 বার
 
 
 
 
বাংলাদেশী জাতীয়তাবাদ ও তারেক রহমান
 
 
 
 

সব মেনু এক সাথে

 
 

পূর্বের সংবাদ

 
 

অনন্য অনলাইন পত্রিকা

 
 
 

 
Plugin by:aAM
Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com