যুক্তরাজ্যে দেশনেত্রীর অবিলম্বে মুক্তি দাবি

ফেব্রুয়ারি ৮, ২০১৮ ৬:৩৩ অপরাহ্ণ

:: দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার অবিলম্বে মুক্তি  দাবি করে ও তারেক রহমানের বিরুদ্ধে সকল মামলা প্রত্যাহার সহ সকল রাজবন্দীর মুক্তি দাবি করে যুক্তরাজ্যে বাংলাদেশ ফ্যাসিবাদ বিরোধী প্ল্যাকার্ড সো অনুষ্ঠিত করে বৃটিশ প্রধানমন্ত্রীকে স্বারকলিপি দেয় অনাবাসী বাংলাদেশীদের সংগঠন ।

আজ 0৮ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ একটি কলঙ্কিত অধ্যায় ও ফ্যাসিজমের বহিঃপ্রকাশ এই দাবি করে ১০ নং ডাউনিং ষ্ট্রীটের সামনে সকাল ১০.৩০ হতে দুপুর ২.৩০ ঘটিকা পর্যন্ত প্ল্যাকার্ড প্রদর্শণী করেন  অনাবাসী বাংলাদেশীদের প্রচারণামূলক আন্দোলন “ষ্টপ বাংলাদেশ ফ্যাসিজম” ।

তারা দাবি করেন এই দিন অবৈধ আওয়ামীলীগ সরকার সম্পূর্ণ বিচার ব্যবস্থাকে আয়ত্ত্ব করে দেশনেত্রী খালেদা জিয়াকে ৫ বছর সাজা দিয়ে, তাকে নির্বাচন থেকে দূরে সরে রেখে, তারা দেশের একদলীয় শাসন ব্যবস্থা ও ফ্যাসিজম কায়েম করার ষড়যন্ত করেছেন । 

প্রদর্শনীতে ছাত্রনেতা পারভেজ তালুকদার বলেন- গণতন্ত্রের মূর্ত প্রতীক সাবেক ৩ বারের প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশ জাতিয়তাবাদী দলের চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়াকে মিথ্যা দুর্নীতির কালিমা দেয়া হয়েছে।  
খালেদা জিয়া স্বাধীনতা কথা বলেন। এর জন্য প্রতিশোধ ও প্রতিহিংসার শিকার তিনি। পৃথিবীর কোন দেশে এমন দৃষ্টান্ত নেই । এ রায় দীর্ঘ প্রতিহিংসার বহিঃপ্রকাশ। এ রায় জনগণের আশা আঙ্কাক্ষার বিরুদ্ধে।
 এছাড়া বাংলাদেশ আওয়ামিলীগের নেতাকর্মী ও সরকারের পক্ষ থেকে দিনের পর দিন তার নামে মিথ্যাচার করা হচ্ছে এবং তাকে রাজনৈতিক মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করা হচ্ছে এবং সারা দেশে বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের রাজনৈতিক মিথ্যা মামলা, হামলা, আটক ও ভয়ভীতি প্রদর্শণ করা হচ্ছে । এ রায়ের প্রতি ও সারা দেশে নেতাকর্মীদেরকে গণগ্রফতারে আমরা ধিক্কার জানাই। এসময় তারা- দেশনেত্রী খালেদা জিয়া সহ দেশের সকল রাজবন্দি মুক্তি দাবি করেন এবং পাশাপাশি বাংলাদেশের হারিয়ে যাওয়া গণতন্ত্র ফেরত চান ।

সাংবাদিক আখতার মাহমুদ বলেন- এই অবৈধ আওয়ামীলীগ ফ্যাসিস সরকার ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি ভোটারবিহীন, প্রার্থীবিহীন নির্বাচনের পর ক্ষমতায় এসে মানুষের বাক স্বাধীনতা, নিরাপত্তা, মানবাধিকার হরণ করেছে । সরকারী বাহিনী দিয়ে হত্যা, গুম করছে । রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাস করছে এবং এক শ্রেণীর ফ্যানাটিক সমর্থক গোষ্ঠীকে সমর্থন দিয়ে যাচ্ছে। এটি ফ্যাসিজমের বহিঃপ্রকাশ । এ ফ্যাসিজম কায়েমে সমর্থন দিয়ে যাচ্ছে ভারত । এখন ফ্যাসিজমের বহিঃপ্রকাশ ও গণতন্ত্রের এ বদ্ধ অবস্থা কেটে মানুষের ভোটাধিকার, মানবাধিকার, নিরাপত্তা, দেশের টেকসই উন্নয়নের স্রোত আনতে হবে আমাদের সবাইকে।  যেমন আমরা সবাই ১৯৫২, ১৯৭১, ১৯৯১ সালে আন্দোলন ও যুদ্ধ করে আমাদের বিজয় এনেছি-তা অম্লান রাখতে হবে এবং বর্তমান অবৈধ আওয়ামীলীগ সরকারের নৈরাজ্যময়, দুঃশাসন, গণতন্ত্রহীন পরিবেশ থেকে দেশের জনগণকে মুক্ত করতে আর একটি বিজয় অনতে হবে আমাদের সবাইকে ২০১৮ সালে । এজন্য আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে এগিয়ে আসতে হবে ।

এই প্লেকার্ড শোতে যুবদল নেতা আসাদুজ্জামান মুকুল ও উপস্থিত ছিলেন । প্ল্যাকার্ড প্রদর্শনীতে আরো বলা হয় ; স্বাধীন বাংলাদেশে গুম, খুন, বিনা বিচারে হত্যা ও বিরোধী দলের নেতা কর্মীদের রাজনৈতিক মিথ্যা মামলা, হামলা, আটক, হয়রানি ও ভয়ভীতি বন্ধ করতে হবে ।

তারা আরো বলেন- আসুন আমরা সবাই মিলে গণতন্ত্র পুনরুদ্বার করি ও ফ্যাসিষ্ট সরকারের হাত থেকে দেশের জনগণকে রক্ষা করি এবং বাংলাদেশের জনগণের ভোটাধিকার, মানবাধিকার ও নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠিত করি ।

এ লক্ষ্যে আজকে স্টপ বাংলাদেশে ফ্যাসিজম সংগঠনের সংগঠক সাংবাদিক, রাজনীতিবিদ ও লেখক আখতার মাহমুদের উদ্যোগে ও ছাত্রনেতা আনোয়ার পারভেজ তালুকদারের পরিচালনায় বাংলাদেশের বর্তমান ফাসিস্ট সরকারের বিরুদ্বে যুক্তরাজ্যের লন্ডনে প্রধানমন্ত্রী অফিসের সামনে “স্টপ বাংলাদেশ ফ্যাসিজম” শীর্ষক প্ল্যাকার্ড সো’র আয়োজন করে এবং বাংলাদেশের ফ্যাসিজম বন্ধ করার জন্য যুক্তরাজ্য সরকারের দৃষ্টি অকর্ষণ করেন ।উল্লেখ্য অনাবাসী বাংলাদেশীদের এ সংগঠনটি ২০১৫ সালের মার্চ মাস থেকে বাংলাদেশে ফ্যাসিজমের উত্থানের প্রতিবাদে গণ সংযোগ ও সচেতনতা তৈরী করতে কাজ করে যাচ্ছে ।

 
সংবাদটি পড়া হয়েছে 2803 বার
 
 
 
 
বাংলাদেশী জাতীয়তাবাদ ও তারেক রহমান
 
 
 
 

সব মেনু এক সাথে

 
 

পূর্বের সংবাদ

 
 

অনন্য অনলাইন পত্রিকা

 
 
 

 
Plugin by:aAM
Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com