ভিডিও গেমের জন্য প্রতিদিন ভিক্ষা করে ওরা!

অক্টোবর ২৪, ২০১৭ ৫:১৬ অপরাহ্ণ

সে একজন পথশিশু। নাম আব্বাস। ভিডিও গেমের প্রতি মারাত্ম ঝোঁক তার। ভিডিও দেখার প্রতিও রয়েছে আকর্ষণ। সারাদিন ভিক্ষা করে তাই ৫০ টাকা সংগ্রহ কর সে ছুটে এসেছে কম্পিউটারে ভিডিও দেখতে।

শুধু আব্বাস একা নয়, এভাবে প্রতিদিন ফেনী শহরের প্রায় অর্ধশত পথশিশু শহরের রাস্তায় ও মার্কেটে ভিক্ষা করে বেড়ায়; উদ্দেশ্য একটাই-ভিক্ষার টাকা দিয়ে ভিডিও গেম খেলা কিংবা ভিডিও দেখা।

ভিক্ষা ছাড়াও গেম খেলার বা ভিডিও দেখার টাকা যোগাড়ে অনেক পথশিশুই জড়িয়ে পড়ছে চুরির মত ঘৃন্য অপরাধে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ফেনী শহরের স্টেশন রোডে আশপাশের বস্তির ছেলে-মেয়েরা প্রতিদিন মোবাইলে ও কম্পিউটারে গেম খেলার কিংবা ভিডিও দেখার জন্য ছুটে যায় ওই এলাকার দুটি নির্দিষ্ট প্রতিষ্ঠানে। এই দুটি প্রতিষ্ঠান এই সব পথশিশুদের কাছ খেকে হাতিয়ে নিচ্ছে হাজার হাজার টাকা। প্রতিদিন সকাল ১০ থেকে রাত ১১ পর্যন্ত চলে এই গেম খেলা। মোবাইলে প্রতি ঘন্টা ২০ টাকা এবং কম্পিউটারে খেললে নেওয়া হয় ৫০ টাকা করে। যারা গেম খেলতে পারে না তারা ইউটিউবে ভিডিও দেখে।

প্রতিদিন আব্বাস, সাহেদ, ছকিনা, শুক্কুর উদ্দিন রহিম সহ প্রায় অর্ধশত পথশিশু শহরের মহিপাল শহিদ মার্কেট, গ্র্যান্ড হক টাওয়ার ও স্টেশান রোডসহ বিভিন্ন স্থানে মানুষের পা ধরে ‘বাবার অসুখ’, ‘মা-বাবা কেউ নেই’ ইত্যাদি বিভিন্ন কৌশলে ভিক্ষা করে টাকা যোগাড় করে। পরে সেই টাকা নিয়ে ছুটে যায় উল্লেখিত দুই প্রতিষ্ঠানে। মা-বাবার নিষেধ উপেক্ষা করেই এই আকর্ষণে ভিক্ষা করে এই শিশুরা। অতপর সেই টাকা গেম খেলা কিংবা ভিডিও দেখায় ব্যয় করে। ওই দুই প্রতিষ্ঠানের আশপাশের দোকানদারদের সাথে কথা বলে যায় এই বিষয়টি তাদের জন্য বিরক্তিকর হয়ে দাঁড়িয়েছে। কেননা, শিশুদের হৈ-হল্লোড়ে তাদের দোকানদারী করাই দায় হয়ে পড়েছে ।

এ বিষয়ে ফেনী সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ মামুন জানান, এ বিষয়ে খোঁজ খবর নিয়ে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 
সংবাদটি পড়া হয়েছে 1141 বার
 
 
 
 
বাংলাদেশী জাতীয়তাবাদ ও তারেক রহমান
 
 
 
 

সব মেনু এক সাথে

 
 

পূর্বের সংবাদ

 
 

অনন্য অনলাইন পত্রিকা

 
 
 

 
Plugin by:aAM
Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com