বিপিএল ঘিরে চট্টগ্রামে কঠোর নিরাপত্তা

নভেম্বর ২৪, ২০১৭ ৫:৪৯ পূর্বাহ্ণ

বিপিএল ঘিরে চট্টগ্রামে উত্তাপ শুরু হয়েছে। আজ ২৪শে নভেম্বর শুক্রবার সকাল থেকে স্টেডিয়াম পাড়ায় চলছে দর্শকদের টিকেট সংগ্রহ। গড়ে তোলা হয়েছে পুলিশের কঠোর নিরাপত্তা বেষ্টনী। সম্পন্ন হয়েছে মাঠের প্রস্তুতিও।

দেশের ঘরোয়া আসরের সবচেয়ে বড় এই আসরের তৃতীয় পর্বটি শুরু হচ্ছে আজ ২৪ নভেম্বর থেকেই। চলবে ২৯ নভেম্বর পর্যন্ত। আসরের এ পর্বে অংশ নিতে গতকাল বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে সাতটি দল চট্টগ্রামে এসে পৌছেছে।

চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশ কমিশনার ইকবাল বাহার জানান, বৃহস্পতিবার রাতে আসা সাতটি দলের পাঁচটি দল হোটেল রেডিসন ব্লু-তে, বাকি দুটি দলের একটি প্যানিনসুলা এবং আরেকটি আগ্রাবাদ হোটেলে অবস্থান করছে। খেলোয়াড়দের নিরাপত্তায় প্রায় এক হাজার ৫০০ পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। টহলে রয়েছে র‌্যাব সদস্যরাও।

তিনি বলেন, ক্রিকেটারদের নিরাপত্তার স্বার্থে বেশকিছু নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। এরমধ্যে ক্রিকেটারদের ব্যক্তিগত চলাচলে অনুৎসাহিত করা, নগরীর প্রধান সড়ক শেখ মুজিব রোড যানজট মুক্ত রাখা এবং মোবাইল ছাড়া অন্য কোন কিছু নিয়ে মাঠে প্রবেশ না করার কথা বলেছেন তিনি।

ইকবাল বাহার বলেন, আমরা প্রতিটি টিমকে নিরাপত্তার স্বার্থে বলে দিয়েছি ক্রিকেটাররা যাতে ব্যক্তিগতভাবে চলাচল না করে। একান্তে প্রয়োজন হলে প্রতিটি হোটেলেই পুলিশ টিম থাকবে। তাদের সঙ্গে নিয়ে যেন বের হন।

ইকবাল বাহার জানান, বিপিএলের সবকটি খেলাই হবে জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে। মাঠের পরিচর্যার কাজ ইতোমধ্যে শেষ হয়েছে। এম আজিজ স্টেডিয়ামে অনুশীলন করবে বিভিন্ন দল। মাঠে দর্শকরা শুধুমাত্র মোবাইল নিয়ে প্রবেশ করতে পারবে। পানির বোতলসহ অন্য কোনো খাদ্যসামগ্রী নিয়ে প্রবেশ করা যাবে না। জাতীয় পতাকা আর প্ল্যাকার্ড নিয়ে প্রবেশ করা যাবে, তবে লাঠিবিহীন হতে হবে।

পুলিশ কমিশনার বলেন, মাঠে পানিসহ অন্যান্য খাদ্য পাওয়া যাবে। সেখান থেকে কিনে খেতে হবে। বাইরে থেকে কোনো কিছু নিয়ে মাঠে প্রবেশ করা যাবে না।

তিনি আরও বলেন, বিপিএলের চট্টগ্রাম পর্বে নিরাপত্তায় কাজ করছে ১৫০০ পুলিশ সদস্য। অবশ্য খেলা চলাকালীন মাঠে ১১০০ পুলিশ কাজ করবেন। সবমিলিয়ে ১৫০০ পুলিশ সদস্য দায়িত্ব পালন করছেন।

তিনি বলেন, নগরীর প্রধান সড়ক শেখ মুজিব রোডকে যানজট মুক্ত রাখতে হচ্ছে। এটা বেশিক্ষণ অবরুদ্ধ করে রাখা মানে যানজট বাড়ানো। তাই আমরা চাইবো খেলোয়াড়দের কম সময়ে আনা নেওয়ার কাজটা সারতে।

টিকিট নিয়ে যাতে দর্শকদের ভোগান্তি এড়াতে খেলা শুরুর চার থেকে পাঁচ ঘণ্টা আগে থেকেই টিকেট বিক্রির সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংকের (ইউসিবি) বুথে টিকিট পাওয়া যাচ্ছে। বিটাক মোড় ও এম এ আজিজ স্টেডিয়াম এলাকার নির্দিষ্ট কাউন্টার থেকে আজ শুক্রবার সকাল থেকে দর্শকরা টিকিট সংগ্রহ করছেন।

খেলা চলাকালীন নিরাপত্তা নিয়ে কড়কাড়ি থাকায় সাগরিকা এলাকায় বিভিন্ন অফিস, ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে কর্মরতরা ভোগান্তিতে পড়েন। প্রায় সময় তারা সেদিকে প্রবেশ করতে পারে না। তাই তাদের জন্য এবার আলাদা স্টিকারের ব্যবস্থা করা হয়েছে। যা দেখিয়ে তারা নির্বিঘ্নে কর্মস্থলে যেতে পারবেন বলে জানান পুলিশ কমিশনার।

 
সংবাদটি পড়া হয়েছে 1121 বার
 
 
 
 
বাংলাদেশী জাতীয়তাবাদ ও তারেক রহমান
 
 
 
 

সব মেনু এক সাথে

 
 

পূর্বের সংবাদ

 
 

অনন্য অনলাইন পত্রিকা

 
 
 

 
Plugin by:aAM
Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com