ট্রাম্পের ঘোষণা নিয়ে মধ্যপ্রাচ্যে অস্থিরতার শঙ্কা

ডিসেম্বর ৬, ২০১৭ ৫:২১ পূর্বাহ্ণ

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প জেরুজালেমকে ইসরাইলি রাজধানী ঘোষণা করবেন বলে জানিয়েছেন মার্কিন শীর্ষ কর্মকর্তারা। সেইসঙ্গে তেলআবিব থেকে মার্কিন দূতাবাস জেরুজালেমে স্থানান্তর করা হবে বলেও জানান তারা। এ নিয়ে মধ্যপ্রাচ্য তথা ওই অঞ্চলে নতুন করে অস্থিরতার আশঙ্কা করছেন সংশ্লিষ্টরা।

মার্কিন প্রশাসনের শীর্ষ কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে আলজাজিরার খবরে বলা হয়েছে, বুধবার প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প এক ভাষণে জেরুজালেমকে ইসরাইলের রাজধানী হিসেবে ঘোষণা করবেন। সেইসঙ্গে আস্তে আস্তে তেলআবিব থেকে মার্কিন দূতাবাস জেরুজালেমে নেওয়ার নির্দেশনা দেবেন।

বিষয়টি নিয়ে বিশ্বব্যাপী যখন নিন্দার ঝড় উঠেছে তখন ট্রাম্প এ ঘোষণা দিতে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ বলে জানিয়েছে মার্কিন প্রশাসন। তবে সংশ্লিষ্টরা মনে করছেন, ট্রাম্পের এই অবস্থানের কারণে ইসরাইল ও ফিলিস্তিনের মধ্যকার শান্তি প্রক্রিয়া যেমন ব্যাহত হবে তেমনি ওই অঞ্চলে নতুন করে অস্থিতিশীলতা তৈরি হবে।

তবে তেলআবিব থেকে মার্কিন দূতাবাস সময় নিয়ে জেরুজালেমে সরিয়ে নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন মার্কিন কর্মকর্তারা।

খবরে বলা হয়েছে, বিষয়টি নিয়ে ট্রাম্প ইতোমধ্যে ফিলিস্তিন, জর্ডান ও মিসরের সরকার প্রধানদের সঙ্গে কথা বলেছেন। মঙ্গলবার ফোন করে ট্রাম্প তাদের সঙ্গে কথা বলেন। কিন্তু তিন দেশের নেতারাই ট্রাম্পকে এ ব্যাপারে সতর্ক করেছেন। কিন্তু তা সত্ত্বেও বুধবার এ ঘোষণা দিতে যাচ্ছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

ফিলিস্তিনি প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস ট্রাম্পকে বলেছেন, তার (ট্রাম্প) এ সিদ্ধান্তের পরিণতি হবে ভয়াবহ এবং এর ফলে ইসরাইল ও ফিলিস্তিনের মধ্যকার শান্তি প্রক্রিয়া ব্যাহত হবে। সেইসঙ্গে অত্র অঞ্চল তথা বিশ্বের শান্তি, নিরাপত্তা ও স্থিতিশীলতা বিঘ্নিত হবে।

ট্রাম্পের সঙ্গে কথা বলার পর মাহমুদ আব্বাসের মুখপাত্র নাভিল আবু রুদেইনা এক বিবৃতিতে এ কথা জানান।জর্ডানের বাদশা দ্বিতীয় আবদুল্লাহ ট্রাম্পকে বলেছেন, এই সিদ্ধান্ত অত্র অঞ্চলের স্থিতিশীলতা ও নিরাপত্তার ওপর বিপজ্জনক প্রভাব ফেলবে। জর্ডানের রাজপ্রাসাদ থেকে এক বিবৃতির মাধ্যমে এ কথা জানানো হয়েছে।

মিসরের প্রেসিডেন্ট আব্দেল ফাত্তাহ আল সিসিও এ ব্যাপারে ট্রাম্পকে সতর্ক করেছেন। তিনি বলেছেন, এর ফলে মধ্যপ্রাচ্যের শান্তি প্রক্রিয়া উপেক্ষিত হবে। মিসর সরকারের পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে এ কথা জানানো হয়েছে।

এর আগে মঙ্গলবার সকালে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোগান হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, ট্রাম্প যদি দূতাবাস সরানোর উদ্যোগ নেন তাহলে তার দেশ ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করবে।

 
সংবাদটি পড়া হয়েছে 1019 বার
 
 
 
 
বাংলাদেশী জাতীয়তাবাদ ও তারেক রহমান
 
 
 
 

সব মেনু এক সাথে

 
 

পূর্বের সংবাদ

 
 

অনন্য অনলাইন পত্রিকা

 
 
 

 
Plugin by:aAM
Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com