কুকুরকে চিনে রাখুন, যাতে ওর পোস্ট মর্টেম না লাগে

মার্চ ১৪, ২০১৮ ৯:৩৫ পূর্বাহ্ণ

:: রাজধানীতে যত ক্রস ফায়ার হয়, যত পলিটিক্যাল কিলিং হয়, সব সময় পোস্টমর্টেম করে ঢাকা মেডিকেল কলেজের ফরেনসিক বিভাগের প্রধান ডাঃ সোহেল মাহমুদ। তার কাজ হলো, পুলিশ এবং সরকারের সুবিধা হয় এমন রিপোর্ট দেয়া। সে কখনও সত্যিকারের রিপোর্ট দেয় না

নিচের ছবির মনুষ্যাকৃতির পশুটি ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ময়নাতদন্তকারী চিকিৎসক ডা. সোহেল মাহমুদ। সে রিপোর্ট দিয়েছে নিহত ছাত্রদল নেতা জাকির হোসেন মিলনের শরীরে কোনো আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি! অথচ জাকিরের ২০টি আঙ্গুলের নখ তুলে ফেলেছিল পুলিশ, পিটিয়ে সারা শরীর ফোলা ছিল, আঘাতের দাগও ছিল- কিন্তু সোহেল মাহমুদ সব গোপন করেছে!

ময়না তদন্তে ঘুরে ফিরে আসা ডাক্তার নামধারী ঐ পশুর পরিচয়ঃ
সে সিলেট মেডিকেল কলেজে ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এবং ছাত্রসংসদেও ছাত্রলীগ থেকে নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক ছিল।

সুতরাং বুঝতে কোনো কষ্ট হচ্ছে না যে, তাকে ঢাকা মেডিকেলের ফরেনসিক বিভাগে বসানো হয়েছেই সুনির্দিষ্ট লক্ষ্য নিয়েই। তাকে দিয়েই দীর্ঘদিন যাবৎ সরকারের প্রতিটি বিচার বহির্ভূত হত্যা ও অপকর্মকে বৈধতা দেয়া হচ্ছে।

কুকুরকে চিনে রাখুন, যাতে ওর পোস্ট মর্টেম না লাগে।

Iqbal Chowdhury এর ফেবু থেকে নেওয়া

সূত্র : বিডি নেটওয়ার্ক ।

 
সংবাদটি পড়া হয়েছে 1259 বার
 
 
 
 
বাংলাদেশী জাতীয়তাবাদ ও তারেক রহমান
 
 
 
 

সব মেনু এক সাথে

 
 

পূর্বের সংবাদ

 
 

অনন্য অনলাইন পত্রিকা

 
 
 

 
Plugin by:aAM
Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com