কঠোর আন্দোলনের হুমকি গ্রামীণফোন কর্মীদের

ফেব্রুয়ারি ৫, ২০১৮ ৬:৪৬ পূর্বাহ্ণ

চাকরি বহাল, অফিসে প্রবেশাধিকার, বকেয়া বেতন ও ইনক্রিমেন্টের পাওনা প্রদানের দাবিতে ধারাবাহিক আন্দোলনে নেমেছেন গ্রামীণফোনের বিনা নোটিসে চাকরিচ্যুত ৬ শতাধিক শ্রমিক-কর্মচারী। এর অংশ হিসেবে গতকাল রবিবার রাজধানীর কাওরানবাজার কল-কারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তরের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়। সেখান থেকে কঠোর আন্দোলনের হুমকি দেয়া হয়েছে।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, অবিলম্বে শ্রমিক-কর্মচারীদের চাকরিতে বহাল করে অফিসে প্রবেশাধিকার, বাত্সরিক বেতন বৃদ্ধি ও ইনক্রিমেন্টের ৭শ’ কোটি টাকা প্রদান করতে হবে। তা না হলে গ্রামীণফোনের সকল আঞ্চলিক অফিসে তালা ঝুলবে। বক্তারা গ্রামীণফোনকে হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, আগুন নিয়ে খেলবেন না, হাত পুড়ে ছাই হয়ে যাবে। শ্রমিকদের সাথে বাংলাদেশের কোটি কোটি শ্রমিক রয়েছে। সুতরাং দালাল মাস্তানদের দিয়ে হুমকি দিয়ে লাভ হবে না, এসব শ্রমিক কোনোকিছুতে ভয় পায় না।

দ্রুত দাবি মেনে না নেওয়া হলে গ্রামীণফোনের সকল কার্যক্রম গুঁড়িয়ে দেয়া হবে হুমকি দিয়ে শ্রমিকরা বলেন, অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতি তৈরি হলে এর দায়ভার শ্রমিকরা নেবে না। যেকোনো অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতির দায় গ্রামীণফোনকে বহন করতে হবে। অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতি এড়াতে দাবি দ্রুত মেনে নেয়ার অনুরোধ জানান।

মানববন্ধনে শ্রমিকদের দাবির প্রেক্ষিতে কল-কারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তরের যুগ্ম মহাপরিদর্শক শামসুল আলম খান শ্রমিকদের দাবি দাওয়া দ্রুত সমাধানের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। গ্রামীণফোন শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি লোকমান হোসেনের সভাপতিত্বে ও গ্রামীণফোনের কর্মচারী সাইফুল ইসলামের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন গ্রামীণফোন শ্রমিক-কর্মচারী লীগের সভাপতি মো. হাসমত আলী, সহ-সভাপতি রমজান আলী ও ফজলুল হক মিলন, সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান, সাংগঠনিক সম্পাদক বাদশা মিয়া, গ্রামীণফোন শ্রমিক-কর্মচারী ইউনিয়নের সহ-সভাপতি ফয়েজ আহমদ, সাধারণ সম্পাদক মুসলেম উদ্দিন, ওলিউর রহমান, জাফর শেখ, গ্রামীণফোন শ্রমিক-কর্মচারী ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক কামরুল হোসেনসহ অনেকে।

গ্রামীণফোন শ্রমিক-কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি লোকমান হোসেন ও গ্রামীণফোন শ্রমিক-কর্মচারী লীগের সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান ইত্তেফাককে বলেন, যদি অবিলম্বে দাবি মেনে না নেওয়া হয়, তাহলে আগামী সপ্তাহ থেকে শ্রমিকরা কঠোর আন্দোলনে যেতে বাধ্য হবে। তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ কামনা করে বলেন, এদেশের কোটি কোটি শ্রমিকের আপনজন। তাই শ্রমিকদের দুঃখ দুর্দশার কথা চিন্তা করে প্রধানমন্ত্রী গ্রামীণফোনকে নির্দেশ দিলে শ্রমিকদের পাওনা দিতে ও চাকরি পুনর্বহাল করতে বাধ্য হবে।

 
সংবাদটি পড়া হয়েছে 1082 বার
 
 
 
 
বাংলাদেশী জাতীয়তাবাদ ও তারেক রহমান
 
 
 
 

সব মেনু এক সাথে

 
 

পূর্বের সংবাদ

 
 

অনন্য অনলাইন পত্রিকা

 
 
 

 
Plugin by:aAM
Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com