এই বেহায়াদেরও জুতাপেটা করেই তাড়াতে হবে, এমনি এমনি যাবে না!

জানুয়ারি ১১, ২০১৮ ৬:৩২ অপরাহ্ণ

:: এক বামুনের ছিল সাত মেয়ে। দেশে আকাল লাগলে সাত মেয়ে- জামাই সবাই এসে উপস্থিত! বহু বছর পর সবাইকে একসাথে পেয়ে বামুন -বামুনী বেজায় খুশি!
২/৪ পর মেয়ে জামাইদের চব্য – চুষ্য – লেহ্য – পেয় খাইয়ে বামুনের ট্যাক খালি হতেই বিরক্তিপ্রকাশ করে! কিন্তু বামুনীর আহ্লাদ কমে না! তিনি নানা গোপন যায়গায় সঞ্চয় করা অর্থ বামুনের হাতে তুলে দিতে লাগলেন। এক সময় তাও ফুরিয়ে গেলে বামুন মেয়ে জামাইদের বিদায় করতে চাইলেন! কিন্তু বামুনী নারাজ! এবার বামুনী গহনাগাঁটি বিক্রি করে জামাইদের আপ্যায়ন করতে লাগলেন! বামুন বুঝতে পারলেন অবস্থা গুরুতর! এই আকালের দিনে জামাই সেবা করতে গেলে ভিটেমাটি পর্যন্ত চলে যাবে! তিনি গ্রামের একজন বিজ্ঞ ব্যক্তির পরামর্শে জামাই তাড়ানোর ব্যবস্থা নিলেন –
১ম দিন পাতে ঘি না পড়ায় অপমানবোধ করে বড় জামাই চলে গেল!
২য় দিন মিষ্টান্ন না দেয়ায় অপমানবোধ করে মেজ জামাই চলে গেল!
৩য় দিন পাতে মাংস না দেয়ায় অপমানবোধ করে সেজ জামাই চলে গেল!
৪র্থ দিন মাছ না দেয়ায় অপমানবোধ করে চতুর্থ জামাই চলে গেল!
৫ম দিন তরকারী না দিয়ে শুধু ডাল দেয়ায় পঞ্চম জন চলে গেল!
৬ষ্ঠ দিন শুধু লবণ ভাত দেয়ায় ষষ্ঠ জামাইও চলে গেল!
কিন্তু সপ্তম জামাই আর যায় না, লবণ ভাত খেয়েই রয়ে গেল! আকালের দিন – এখানে তবুও লবণ ভাত কপালে জুটছে ; বাড়ি গেলে তো উপোষ করতে হবে!
অবশেষে সেই বিজ্ঞ ব্যক্তির পরামর্শে বামুন খড়মপেটা করে ছোট মেয়ের জামাইকে বাড়ি ছাড়া করলেন!
-সুত্র: বাঙ্গালীর হাসির গল্প- জসীমুদ্দিন আহমেদ।
এই বেহায়াদেরও জুতাপেটা করেই তাড়াতে হবে, এমনি এমনি যাবে না!

 
সংবাদটি পড়া হয়েছে 1741 বার
 
 
 
 
বাংলাদেশী জাতীয়তাবাদ ও তারেক রহমান
 
 
 
 

সব মেনু এক সাথে

 
 

পূর্বের সংবাদ

 
 

অনন্য অনলাইন পত্রিকা

 
 
 

 
Plugin by:aAM
Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com